ডাকডাকগো কি এবং কিভাবে এটি গুগল থেকে ভাল?

ডাকডাকগো কি এবং কিভাবে এটি গুগল থেকে ভাল? : আপনি যদি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, তাহলে আপনি নিশ্চয়ই কোনো এক সময়ে DuckDuckGo সম্পর্কে পড়েছেন। আপনি যদি জানেন না DuckDuckGo কি, তাহলে এই নিবন্ধে আমরা আপনাকে DuckDuckGo সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য দেব।

আপনি যদি অনলাইন নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হন তাহলে এই নিবন্ধটি আপনার জন্য খুবই উপকারী হতে পারে। অনলাইন গোপনীয়তা সম্পর্কে গুগলের সাথে সবসময় কিছু না কিছু চলছে এবং আপনি এটি কমাতে DuckDuckGo ব্যবহার করতে পারেন। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক DuckDuckGo কি।

ডাকডাকগো কি (What is DuckDuckGo in Bengali)

টেলিগ্রাম এ জয়েন করুন
ডাকডাকগো কি

DuckDuckGo গুগলের মতোই একটি ওয়েব সার্চ ইঞ্জিন। অর্থাৎ, এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি ইন্টারনেটের সাহায্যে আপনার প্রয়োজনীয় জিনিসগুলি খুঁজে পেতে পারেন। বাজারে এরকম অনেক সার্চ ইঞ্জিন আছে। এর মধ্যে গুগল, বিং, ইয়াহু, ইয়ানডেক্স খুবই জনপ্রিয়।

ভারতের বেশিরভাগ মানুষ গুগল সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করেন। গুগলের পাশাপাশি বিং আমেরিকা ও ইউরোপে বেশি ব্যবহৃত হয়। একই ইয়ানডেক্স সার্চ ইঞ্জিন রাশিয়ায় ব্যবহৃত হয়। চীনে গুগলের উপর নিষেধাজ্ঞার কারণে, চীনারা তাদের নিজস্ব বাইদু সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে।

এই সমস্ত সার্চ ইঞ্জিনের মত, DuckDuckGoও একটি সার্চ ইঞ্জিন। যদিও এটি গুগলের মতো জনপ্রিয় নয়, তবুও পশ্চিমা দেশগুলোতে লাখ লাখ মানুষ DuckDuckGo ব্যবহার করছে। গোপনীয়তা পশ্চিমা দেশগুলিতে এর ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তার কারণ। এই বিশেষ কারণে, এখন ভারতে অনেক ইন্টারনেট ব্যবহারকারী DuckDuckGo ব্যবহার করছেন। DuckDuckGo সম্পর্কে আরও জানার আগে, এর ইতিহাস সম্পর্কে একটু জেনে নেওয়া যাক।

ডাকডাকগোর ইতিহাস

DuckDuckGo 25 সেপ্টেম্বর, 2008-এ গ্যাব্রিয়েল উইনবার্গ দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। অর্থাৎ প্রায় এক দশক আগে এই সার্চ ইঞ্জিন প্রতিষ্ঠিত হয়। DuckDuckGo এর নামকরণ করা হয়েছিল শিশুদের কার্টুন টিভি শো DuckDuckGoose এর নামানুসারে। 2011 পর্যন্ত, DuckDuckGo কোন অর্থায়ন পাচ্ছিল না। গ্যাব্রিয়েল উইনবার্গ নিজের অর্থ দিয়ে ওয়েবসাইটটি চালিয়ে যান যা একটি কঠিন কাজ ছিল। পরবর্তীতে অক্টোবর 2011 সালে, Union Square Venture নামে একটি আমেরিকান কোম্পানি DuckDuckGo-তে আগ্রহ দেখায় এবং এতে বিনিয়োগ করে।

ইউনিয়ন কোম্পানির এই বিনিয়োগ DuckDuckGo-এর জন্য প্রাণবন্ত হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে। বিনিয়োগ পাওয়ার পর, গ্যাব্রিয়েল DuckDuckGo সম্প্রসারণ শুরু করেন। গ্যাব্রিয়েলের কঠোর পরিশ্রম DuckDuckGo কে সফল করেছে। 2012 সালে, 1.5 মিলিয়ন মানুষ প্রতিদিন DuckDuckGo অনুসন্ধান করতে শুরু করে। এর কারণে কোম্পানিটি 1,15000 USD এর ভালো লাভ করেছে। এরপর DuckDuckGo-এর গ্রাহক বাড়তে থাকে।

18 সেপ্টেম্বর, 2014-এ, অ্যাপল কোম্পানি তার ব্রাউজার Safari-এ একটি ঐচ্ছিক সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে DuckDuckGo নামকরণ করেছে। এই বছরের 10 নভেম্বর, Mozilla তার Firefox ব্রাউজারে একটি ঐচ্ছিক সার্চ ইঞ্জিন হিসাবে DuckDuckGo নামকরণ করেছে। 30 মে, 2016-এ, টর কোম্পানি তার টর ​​ব্রাউজারে DuckDuckGo-কে ডিফল্ট ব্রাউজার হিসেবে ঘোষণা করে।

দিনে দিনে DuckDuckGo-এর জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে। লোকেরা DuckDuckGo কে Google এর চেয়ে বেশি নিরাপদ মনে করতে শুরু করেছে। এই কারণে, আজকের তারিখে, প্রতিদিন 30 মিলিয়নেরও বেশি মানুষ DuckDuckGo-এ অনুসন্ধান করে। এটি গুগলের তুলনায় অনেক কম। কিন্তু এই সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।

লোকেরা কেন Google এর চেয়ে DuckDuckGo পছন্দ করছে?

সার্চ ইঞ্জিন ছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহার করা খুবই কঠিন। একটি সার্চ ইঞ্জিন হল এমন একটি টুল যা ইন্টারনেটের সব ধরনের তথ্য কেটে একটি প্যাটার্নে সেট করে। পরবর্তীতে এই সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীর প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্য সরবরাহ করে।

সার্চ ইঞ্জিন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর জন্য আশীর্বাদের চেয়ে কম নয়। কিন্তু অনেক সময় এসব সার্চ ইঞ্জিন অসাবধানতাবশত তাদের ব্যবহারকারীদের ক্ষতি করে। সার্চ ইঞ্জিন তাদের ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে এবং তাদের নিজস্ব সুবিধার জন্য ব্যবহার করে। এটি ব্যবহারকারীর গোপনীয়তাকে আঘাত করে।

উদাহরণস্বরূপ, যখনই আমরা গুগল সার্চ ইঞ্জিনে কিছু অনুসন্ধান করি বা একটি পণ্য অনুসন্ধান করি। তারপর গুগল তার সার্ভারে আমাদের পণ্যের তথ্য সংরক্ষণ করে। এটি Google-এর পক্ষে বিজ্ঞাপন দেওয়া সহজ করে তোলে৷ এর সাথে সাথে আমাদের ব্যক্তিগত তথ্যও রয়েছে গুগলের কাছে।

গুগলের অ্যালগরিদম এমনভাবে কাজ করে যাতে এতে আমাদের সম্ভাব্য সব তথ্য থাকে। যেমন আমাদের নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, আমাদের পেশা, আমরা কী খাই, কী ভাষায় কথা বলি, কী জামাকাপড় পড়ি, এই সব বিষয়ই গুগল জানে।

এই কারণে আমাদের গোপনীয়তা আঘাত পায়। এই কারণে, পশ্চিমা দেশগুলির মানুষের মধ্যে গুগলের প্রতি ঘৃণার অনুভূতি রয়েছে এবং তারা গুগলের ডাকডাকগো পছন্দ করছে।

DuckDuckGo এবং Google এর মধ্যে পার্থক্য কি?

DuckDuckGo-এর ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তার পিছনে আসল কারণ হল এর গোপনীয়তা বৈশিষ্ট্য। আপনি যদি গুগল ব্যবহার করেন তবে গুগল আপনার সমস্ত তথ্য পায়। অর্থাৎ গুগল আপনাকে সার্বক্ষণিক ট্র্যাক করছে।

গুগল জানে আপনার নাম কি, আপনি কি কাজ করেন, আপনি কোথায় থাকেন, আপনি ইন্টারনেটে কি খুঁজছেন, আপনি কি সার্চ করছেন বা কি কিনছেন। গুগল তার গ্রাহকের প্রতিটি তথ্য রাখে। যার সাহায্যে তিনি তার শঙ্কা দেখাতে পারতেন। Google ব্যবহার করা আপনার গোপনীয়তার জন্য হুমকি। যদি এটি আপনার কাছে কোন ব্যাপার না, তবে এটি একটি ভিন্ন বিষয়।

গুগলের এই স্বেচ্ছাচারিতায় অনেকেই ক্ষুব্ধ। অনেকের কাছে তাদের গোপনীয়তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তারা চায় না প্রতিবার তাদের ওপর কেউ নজর রাখুক। এ কারণে ইউরোপ-আমেরিকায় অনেকেই গুগল ব্যবহার করেন না।

যেখানে একদিকে গুগল আপনার গোপনীয়তা নষ্ট করে, অন্যদিকে DuckDuckGo আপনার গোপনীয়তা বজায় রাখে। DuckDuckGo আপনার কোনো ব্যক্তিগত এবং ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে না।

DuckDuckGo আপনাকে আপনার অবস্থানের জন্য জিজ্ঞাসা করে না। না। আপনার আইপি ঠিকানা ট্র্যাক করে। না। আপনার সার্চ হিস্টোরি মনিটর করে। অর্থাৎ, DuckDuckGo তার গ্রাহকদের সম্পূর্ণ গোপনীয়তা দেয়। DuckDuckGo-তে, আপনি কারও দৃষ্টিপাত ছাড়াই আপনার পছন্দ মতো সবকিছু অনুসন্ধান করতে পারেন।

আপনাকে এবং আপনার ওয়েব অনুসন্ধান ট্র্যাক করার জন্য এখানে কেউ নেই৷ এই বিশেষত্বের কারণে, অনেকে DuckDuckGo ব্যবহার করছেন।

কিভাবে DuckDuckGo ব্যবহার করবেন?

আপনি যদি গুগল ব্যবহার করতে জানেন, তাহলে DuckDuckGo ব্যবহার করে আপনার কোনো সমস্যা হবে না। DuckDuckGo ব্যবহার করা খুবই সহজ। আপনি DuckDuckGo-এর ওয়েবসাইট www দেখতে পারেন। duckduckgo com এ গিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

আপনি যদি একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল স্মার্টফোন ব্যবহার করেন, তাহলে আপনি Google Playstore-এ DuckDuckGo-এর অফিসিয়াল ব্রাউজার অ্যাপ্লিকেশনটি পাবেন। এখন পর্যন্ত এই ব্রাউজারটি ১০ লাখের বেশি মানুষ ডাউনলোড করেছেন।

আপনি যদি অ্যাপল ডিভাইস ব্যবহার করেন, তাহলে আপনি সাফারি ব্রাউজারের সাহায্যে DuckDuckGo ব্যবহার করতে পারেন। অথবা আপনি অ্যাপল স্টোর থেকে DuckDuckGo এর ব্রাউজার ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন। কম্পিউটারে, আপনি ওয়েবসাইট, অ্যাপ্লিকেশন বা এক্সটেনশনের সাহায্যে DuckDuckGo ব্যবহার করতে পারেন।

DuckDuckGo এর সুবিধা

1. এই সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল গোপনীয়তা। DuckDuckGo প্রতিটি উপায়ে আপনার গোপনীয়তা বজায় রাখে।

2. DuckDuckGo ব্যবহারকারীর কোনো তথ্য নিরীক্ষণ করে না।

3. DuckDuckGo গুগলের চেয়ে দ্রুত। রিডাইরেক্ট করার সময় বেশি সময় লাগে না।

4. DuckDuckGo দৃশ্যত Google এবং অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনের মত চলে না।

5. DuckDuckGo দৃশ্যমানতার অভাবের কারণে কোনো বিষয়বস্তুতে বৈষম্য করে না।

DuckDuckGo এর অসুবিধা

1. DuckDuckGo এর অ্যালগরিদম গুগলের তুলনায় খুবই দুর্বল।

2. গুগল তার সার্চ ইঞ্জিনের পাশাপাশি অন্যান্য পরিষেবার কারণে ওয়েব ব্রাউজিং উন্নত করে।

3. যেখানে DuckDuckGo সহজভাবে এখান থেকে এবং সেখান থেকে তথ্য সংকলন করে এবং আপনার কাছে পৌঁছে দেয়।

4. DuckDuckGo এর নিজস্ব ইন্ডেক্সিং অ্যালগরিদম নেই৷ সেজন্য সে শুধুমাত্র সব বড় ওয়েবসাইট ফিল্টার করে আপনার কাছ থেকে তথ্য নেওয়ার চেষ্টা করে।

5. Google এর মত, DuckDuckGo হিন্দি ভাষা এবং অন্যান্য ভারতীয় ভাষার সাথে মেলে না।

DuckDuckGo কি গুগলের চেয়েও ভালো?

অনেকাংশে DuckDuckGo হল গুগলের চেয়ে ভালো সার্চ ইঞ্জিন। কারণ এটি আইপি ঠিকানা বা ব্যবহারকারীর তথ্য সংরক্ষণ করে না। এই কারণে DuckDuckGo গোপনীয়তার দিক থেকে অনেক ভালো।

DuckDuckGo কি একটি নিরাপদ ব্রাউজার?

হ্যাঁ, DuckDuckGo অনুসন্ধান একটি নিরাপদ ব্রাউজার। এর গোপনীয়তা নীতির দিক থেকে এটি খুবই শক্তিশালী। যখনই আপনি DuckDuckGo-তে কিছু অনুসন্ধান করেন, তখনই আপনার সামনে কেবল একটি ফাঁকা অনুসন্ধান ইতিহাস উপস্থিত হয়। এটি দেখায় যে এটি একটি খুব নিরাপদ ব্রাউজার।

গুগল কি DuckDuckGo এর মালিকানাধীন?

না, Google DuckDuckGo-এর মালিক নয়। এটি কোনোভাবেই Google বা এর কোনো কোম্পানির সাথে সম্পর্কিত নয়। এই কারণেই তার প্রথম বিজ্ঞাপনেই তিনি ঘোষণা করেছেন যে “গুগল আপনাকে ট্র্যাক করে”।

আমাদের শেষ কথা

তাই বন্ধুরা, আমি আশা করি আপনি অবশ্যই একটি Article পছন্দ করেছেন (ডাকডাকগো কি)। আমি সর্বদা এই কামনা করি যে আপনি সর্বদা সঠিক তথ্য পান। এই পোস্টটি সম্পর্কে আপনার যদি কোনও সন্দেহ থাকে তবে আপনাকে অবশ্যই নীচে মন্তব্য করে আমাদের জানান। শেষ অবধি, যদি আপনি Article পছন্দ করেন (ডাকডাকগো কি এবং কিভাবে এটি গুগল থেকে ভাল?), তবে অবশ্যই Article টি সমস্ত Social Media Platforms এবং আপনার বন্ধুদের সাথে Share করুন।

Leave a Comment

error: